শনিবার, অক্টোবর ১৯

প্রতিবন্ধকতাই আমার ‘সুপারপাওয়ার’! বলছেন দেশের প্রথম অটিস্টিক মডেল

দ্য ওযাল ব্যুরো: ফ্যাশন দুনিয়ায় নিত্য নতুন ভাঙচুর চলছেই। এখন আর ফ্যাশন মানেই পরিপাটি ছকে বাঁধা পোশাক নয়। তেমনই, এখন আর মডেল মানেই তথাকথিত সুন্দর, স্মার্ট, তণ্বী চেহারা নয়। ইদানীং বারবার দেখা গেছে, অ্যাসিড আক্রান্ত মহিলারা দৃপ্ত পায়ে হেঁটেছেন র‍্যাম্পে। কখনও আবার র‍্যাম্প মাতিয়েছেন ন্যুব্জ বৃদ্ধ-বৃদ্ধারা। কিন্তু এই বার যে মডেলের কথা সামনে এল, সেই অর্থে কোনও সমস্যা বা লড়াইয়ের শিকার না হলেও, সমাজের একটা বড় অংশের চোখেই এখনও ‘অস্বাভাবিক’ কোঠায় বসবাস করে।

১৯ বছরের প্রণব বক্সী দিল্লির বাসিন্দা। ঝকঝকে এই সদ্যতরুণকে দেখলে কোথাও কোনও অন্য রকম কিছু চোখে পড়ে না। পড়ার কথাও নয়। কারণ সেই অর্থে কোনও কিছুই ‘অন্য রকম’ নয় তার। কিন্তু দেশের প্রথম অটিস্টিক মডেল হিসেবে ইতিমধ্যেই সুপরিচিত সে। নামকরা ব্র্যান্ডের ফ্যাশন অ্যামবাসাডর প্রণব তাঁর ইনস্টাগ্রাম পেজে লিখে রেখেছে, ‘অটিজ়ম আমার সুপারপাওয়ার।’

সত্যিই হয়তো সুপারপাওয়ার। যে অটিজ়মকে এখনও সমাজের একটা বড় অংশ বিকৃতি বলে মনে করে, অসুখ বলে মনে করে, অ্যাবনর্মাল বলে মনে করে, সেই অটিজ়মকেই নিজের শক্তি মনে না করতে পারলে, ফ্যাশনের মতো একটা ইন্ডাস্ট্রিতে এত দৃঢ় পদক্ষেপ করতে পারতেন না প্রণব। যে ইন্ডাস্ট্রির শেষ কথা আত্মবিশ্বাস, সে ইন্ডাস্ট্রিতে এরকম উজ্জ্বল নাম হয়ে উঠতে পারতেন না প্রণব। সঙ্গী কেবল মনের জোর আর হাসিখুশি স্বভাব।
কী এই অটিজ়ম?
অটিজ়ম কোনও অসুখ বা বিকৃতি নয়। অটিজ়ম আসলে ছোটদের আচরণগত সমস্যা। বহির্জগতের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করার কাজে পিছিয়ে থাকে তারা। নিজেদের জগতে বন্দি থাকে তারা। বুদ্ধিমত্তা বা বৌদ্ধিক বিকাশে কোনও অসুবিধা হয় না তাদের। অসুবিধা হয়, সেই বুদ্ধিমত্তাকে সঠিক ভাবে প্রকাশ করতে।

মনোবিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, চল্লিশ শতাংশ অপারগতা রয়েছে প্রনবের আচরণে। সেই সঙ্গে তার রয়েছে ইকোলালিয়া এবং অ্যাংজ়াইটির সমস্যা। কিন্তু তা সত্ত্বেও, এ সব অসুবিধা জয় করে, ফ্যাশনের দুনিয়ায় রীতিমতো উজ্জ্বল অবস্থান তার। তার স্বপ্ন, আন্তর্জাতিক ফ্যাশন দুনিয়ায় এক দিন মডেল হিসেবে সকলকে মুগ্ধ করবেন তিনি।

এত দিন নানা রকম ব্র্যান্ডের হয়ে কাজ করলেও, এবং মডেলিং করলেও, সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন তিনি। ২০১৬ সালে বেঙ্গালুরুর একটি অনুষ্ঠানে প্রথম র‍্যাম্পে হেঁটেছিলেন প্রণব। ভিডিওটি সেই অনুষ্ঠানেরই।

দেখুন সেই ভিডিও।

ওই পোস্টে প্রণব  লিখেছেন, “সরি, এই ভিডিওটার মান খুব একটা ভাল নয়। এটাই আমার প্রথম র‍্যাম্পে হাঁটার অভিজ্ঞতা ছিল। আমায় সকলে নাম দিয়েছিল ‘মিস্টার চার্মিং’। আমার সঙ্গে আরও অনেক প্রতিযোগী ছিল ওই ফ্যাশন প্রতিযোগিতায়। আমি নেচেওছিলাম। আমার বোন আমায় শিখিয়েছিল নাচের স্টেপগুলো। এটা দারুণ অভিজ্ঞতা।”

Comments are closed.